Sajek travel

Spread the love

এই শীতে ঘুরে আসতে পারেন মেঘের রাজ্য সাজেক থেকে।। রাত কেটে যাবে হেলিপ্যাডে আড্ডা, গান ও ফানুস ওড়িয়ে।। ভোরের ঠান্ডা হওয়ায় চা হাতে মেঘের মিতালীতে হারিয়ে যাবেন অন্য এক জগতে।। আহ প্রতিটা সকাল যদি এমনি ভাবে কাটানো যেত!!! পাহাড়ে ঘুরার সাথে সাথে দেখে আসতে পারবেন আলুটিলার সুড়ঙ্গ, রিসাং ঝর্না ও হাজাছড়া ঝর্ণা।।

ভ্রমন রুট :
চট্টগ্রাম – অক্সিজেন – খাগড়াছড়ি- রিসাং ঝর্না – হাজাছড়ি ঝর্না – সাজেক- কংলাক পাড়া- আলুটিলা গুহা- খাগড়াছড়ি- অক্সিজেন – চট্টগ্রাম।।।

ভ্রমনের বর্ণনা:
সকাল ৬.৩০ টার মধ্যে অক্সিজেন পৌঁছে গেলাম।। ৭টায় খাগড়াছড়ির গাড়িতে উঠলাম।। ১০.৩০ এ খাগড়াছড়ি পৌছালাম।। হালকা নাস্তা করে, সবুজ জিপ ঠিক করলাম।। ৩ টার স্কটে সাজেকে ঢুকার আগে রিসাং ঝর্ণা ও হাজাছড়া ঝর্ণা ঘুরে লাঞ্চ করে নিলাম।। সাজেকে ঢুকতে ঢুকতে ৫.৩০ বেজে যাবে।। আগে রুমে না উঠে সোজা হেলিপ্যাডে চলে গেলাম সূর্যাস্ত উপভোগ করার জন্য।। হালকা নাস্তা করে ৭ টার দিকে হোটেলে উঠলাম।। রুম আগে থেকে বুক করা ছিল।। ফ্রেশ হয়ে আবার বের হলাম।। রাতে BBQ খাব ঠিক করসিলাম।। কয়েক দোকান ঘুরে ২০০/-( জনপ্রতি) অর্ড়ার করে দিলাম।। তারপর ঘুরে ঘুরে দেখতে লাগলাম রাতের সাজেক।। জিপ ড্রাইবারকে বলে রাখসিলাম সকাল ৬ টায় কংলাক পারা যাব।। ১০.৩০ এর দিকে ডিনার করে নিলাম।। #পেদা_টিং_টিং নামে একটা হোটেল আছে খাওয়া খুব ভাল কিন্তু ওইখানে আগে অর্ডার করে রাখতে হবে তাই রাতে বলে রাখসিলাম সকালে খিচুরী-বেম্বু চিকেন- মরিচ চান্নি-ডিমের কথা ।। ১১.৩০ এর দিকে চলে গেলাম হেলিপ্যাড এ আড্ডা, গান আর ফানুস ওড়িয়ে পার করলাম অর্ধেক রাত। রাতে হোটেলের বারান্দায় দাঁড়িয়ে দেখতে লাগলাম মেঘ আসতে আসতে কাছে আসতেসে।। একটু ঘুমিয়ে ৫.৩০ এ উঠে গেলাম।। গাড়ি হোটেলের সামনে ছিল।। সোজা চলে গেলাম সাজেকের সবচেয়ে উঁচু জায়গা কংলাক পাডায়।। কংলাক পাড়া ঘুরে এসে নাস্তা করে ১০ টার স্কটে বের হওয়ার জন্য রেডি হলাম।। চলে গেলাম আলুটিলা গুহায়।। তারপর খাগড়াছড়ি নেমে লাঞ্চ করে।। চট্টগ্রামের উদ্দ্যেশে রওনা হলাম।।

#খরচ_জনপ্রতি

★মুরাদপুর টু অক্সিজেন ( আসা-যাওয়া) ৭+৭ = ১৪
★অক্সিজেন টু খাগড়াছড়ি ( আসা-যাওয়া) ১৯০+১৯০ = ৩৮০
★ সবুজ জীপ ৬০০০/১০= ৬০০
★ লাঞ্চ = ১৫০/-
★ সাজেক প্রবেশ জনপ্রতি = ২০
★ গাড়ি পাকিং ১০০/১০ = ১০
★ রাতে BBQ = ২০০
★রুম ভাড়া এক রুমে ৪ জন ১০০০/৪ = ২৫০
★ সকালে খিচুরী, বেম্বু চিকেন ও মরিচ চান্নী = ২২০
★ নাস্তা খরচ = ২০০
★ অন্যান্য খরচ = ১০০

মোট= ২১৪৪/-☺️

★সাজেকে শুধু দুই টাইমে ঢুকতে পারবেন।। সকাল ১০ টার স্কটে আর বিকাল ৩ টার স্কটে।।

★ সবুজ জীপে ১০ জন বসতে পারবেন… ভাড়া ৬০০০/-
সাদা চাদের গাড়ীতে ১৫/১৬ জন বসা যায়… ভাড়া ৭০০০-৭৫০০/-
আর ড্রাইভারের থাকা খাওয়া নিজের।। আগে থেকে কথা বলে নিবেন।।

★ GP নেটওয়ার্ক থাকেনা, রবি ও এয়ারটেল ভাল নেটওয়ার্ক পাবেন

★ সাজেকে পানির দাম বেশি তাই খাগড়াছড়ি থেকে নিয়ে যাওয়া ভাল।।

★হোটেল সাজেক যাওয়ার পরও বুক করতে পারবেন, তবে আগে থেকে করে যাওয়া ভাল।।
সবচেয়ে বেস্ট ভিউ পাবেন #মেঘ_মাচাং ও #মেঘ_পুঞ্জি থেকে তবে তার জন্য আপনাকে ১০/১২ দিন আগে বুকিং দিতে হবে।।

যত্রতত্র ময়লা না ফেলে, পরিবেশ রক্ষায় অবদান রাখি।।☺

Farjana Akter

Generations previous to the year 2000 used to reach, exclusively, for travel agencies when wanting to plan a trip. Consequently, travel agents became personal counselors, destined to help customers with their search to build the perfect vacation itinerary.

8 thoughts on “Sajek travel

  • April 11, 2019 at 10:49 am
    Permalink

    Do you have a spam issue on this site; I also am a blogger, and I was wondering your situation; we have developed some nice methods and we are looking to swap techniques with others, why not shoot me an email if interested.

    Reply
  • July 16, 2019 at 5:47 am
    Permalink

    I think what you published was actually very logical. But, what about this? suppose you added a little information? I mean, I don’t want to tell you how to run your website, however what if you added a post title that makes people want more? I mean BLOG_TITLE is a little plain. You might peek at Yahoo’s front page and see how they create news titles to get viewers to open the links. You might add a video or a related pic or two to get readers excited about what you’ve written. Just my opinion, it could bring your website a little bit more interesting.

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *